সব কিছু
facebook channelkhulna.tv
খুলনা মঙ্গলবার , ১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ , ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
ধানমন্ডিতে ‘গ্যাং কালচারে’ ভয়ংকর হয়ে উঠছে ইংলিশ মিডিয়ামের কিশোররা | চ্যানেল খুলনা

ধানমন্ডিতে ‘গ্যাং কালচারে’ ভয়ংকর হয়ে উঠছে ইংলিশ মিডিয়ামের কিশোররা

উত্তরার পরে এবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে উঠতি বয়সী কিশোরদের গ্যাং। এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করতে সংঘর্ষে লিপ্ত হওয়া, স্কুল কলেজে ও কোচিং সেন্টারে শিক্ষার্থীদের উত্ত্যক্ত করা, মাদক সেবন, উচ্চ শব্দে মোটরসাইকেল বা গাড়ি চালানোসহ নানা ধরণের অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে এসব কিশোর।

সরেজমিন অনুসন্ধানে জানা গেছে, গ্যাং কালচারে জড়িয়ে পড়া ধানমন্ডির এসব কিশোরদের অধিকাংশই নামিদামি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের ছাত্র। এরা সবাই ধনী পরিবারের সন্তান। কিন্তু পাশ্চাত্য সংস্কৃতির অনুসরণ করতে গিয়ে বেপরোয়া জীবন যাপন করছে এসব কিশোর।

গত শুক্রবার (১ মার্চ) ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে প্রকাশ্য দিবালোকে সেন্ট ফ্রান্সিস জেভিয়ার্স গ্রীন হেরাল্ড ইন্টারন্যাশনাল (SFX Greenherald International School) স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্র সায়নান হোসেনকে মারধর করতে থাকে ২৫/৩০ জন কিশোর। এ সময় সায়নানকে বাঁচাতে দৌড়ে এসে জড়িয়ে ধরে তার সহপাঠী বন্ধু রাকেশ চাকমা। তখন রাকেশ চাকমাকে ছুরিকাঘাত করে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা।

সহপাঠীকে কিশোরীকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় হামলার শিকার হয় এই দুই কিশোর (সায়নান ও রাকেশ) পরে রক্তাক্ত অবস্থায় রাকেশকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ওই ঘটনায় ধানমন্ডি থানায় অভিযোগ (সাধারণ ডায়েরি) করেন সায়নানের বাবা হোসাইন শাহিদ সুমন।

আহত শিক্ষার্থী সায়নানের বাবা হোসাইন শাহিদ সুমন পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ‘আমার ছেলে পড়ে গ্রীন হেরাল্ড ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে। ওরা ধানমন্ডি ৩২ নম্বরের একটি কোচিং সেন্টারে পড়তে যায়। ওখানে মাস্টারমাইন্ডসহ অন্যান্য স্কুলের ছেলে মেয়েরাও কোচিং করে। আবু সাফকাত নামে মাস্টারমাইন্ড স্কুলের এক শিক্ষার্থী মাস খানেক আগে গ্রীন হেরাল্ড স্কুলের একটা মেয়েকে  ইভটিজিং করে। ওই মেয়ে আমার ছেলের ক্লাসমেট, যে কারণে আমার ছেলে ও তার বন্ধুরা ঘটনার প্রতিবাদ করে। তারা ওই ছেলেকে সরি বলতে বলে, যদিও সে সরি বলেনি’।

‘সপ্তাহখানেক আগে সাফকাত নামের ছেলেটি ওই একই মেয়েকে আবার উত্ত্যক্ত করে। তখনও আমার ছেলেসহ মেয়েটির ক্লাসমেটরা ঘটনার প্রতিবাদ জানায়। এরপর গত শুক্রবার সাফকাত আমার ছেলের মোবাইলে কল করে বলে- যা হইছে হইছে, সেগুলো বাদ দাও। তুমি কি আজকে কোচিংয়ে আসবে? তখন আমার ছেলে উত্তর দেয়- হ্যাঁ আসবো’।

‘শুক্রবার বিকাল তিনটার দিকে কোচিং সেন্টারে যায় সায়নান। সাড়ে ৪টার দিকে কোচিং শেষ করে বের হয়। তখন মাহি সিদ্দিকী নামে মাস্টারমাইন্ড স্কুলেরই আরেক ছেলে সায়নানকে ডেকে রাস্তার একপাশে নিয়ে যায়। সেখানে যেতেই ২৫/৩০ জন ছেলে সায়নানকে মারতে শুরু করে। এসময় আমার ছেলের বন্ধু রাকেশ তাকে বাঁচাতে দৌড়ে গিয়ে জড়িয়ে ধরে। তখন রাকেশের পিঠের একপাশে ছুরিকাঘাত করে সেসব উঠতি বয়সি ছেলেরা’।

‘রাকেশকে উদ্ধার করে প্রথমে বাংলাদেশ মেডিকেল হাসপাতাল, পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হয়। বর্তমানে সে কিছুটা সুস্থ। ঘটনার সময় মারধরের ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ছড়িয়ে দিয়েছিল হামলাকারীরা। যদিও পরবর্তীতে তারা সেসব পোস্ট ডিলিট করে ফেলেছে’।

নেপথ্যে ২৫ সদস্যের কিশোর গ্যাং:

সায়নান, তার বন্ধু রাকেশ, মাস্টারমাইন্ড স্কুলের আবু সাফকাত; এরা সবাই ক্লাস নাইনের ছাত্র। কিন্তু আবু সাফকাতের হয়ে যারা হামলা চালিয়েছে ও রাকেশকে ছুরিকাঘাত করেছে তাদের সবাই ম্যাপলিফ  ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের ও-লেভেলের ছাত্র বলে জানা গেছে।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, হামলাকারীদের ২৫ জনের একটা গ্যাং আছে, সবাই ম্যাপললিফের ছাত্র। এরা সবাই স্কুলের পাশাপাশি ধানমন্ডি ৬/এ তে ভার্টিক্যাল হরাইজন নামের একটি কোচিং সেন্টারে পড়াশোনা করে। তারা দিনরাত ধানমন্ডি ৬/এ ও ১৫/এ তে আড্ডা দেয়।

তারা মেয়েদের উত্ত্যক্ত করে, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে প্রায়ই মারামারি করে। এছাড়া মাদক সেবন ও উচ্চ শব্দে মোটরসাইকেল বা গাড়ি চালায়। এদের অত্যাচারে স্থানীয়রা অতিষ্ঠ।

এই গ্যাংয়ের সদস্যদের মধ্যে আরিয়ান মজুমদার নামে একজন রাকেশকে ছুরিকাঘাত করে। আরিয়ান ও শাফিল দুজন জমজ ভাই বলে জানা গেছে। এছাড়া গ্যাংটির মূল সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করে শাবিদ চৌধুরী।

আরিয়ান ও শাফিল বিভিন্ন জায়গায় তাদের মামার প্রভাব দেখায়। জমজ এই দুই ভাইয়ের মামা মুক্তাদির সম্রাট মওলা ধানমন্ডি থানা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ছিলেন।

ধানমন্ডি ৬/এ’র এক এক দোকানি নাম প্রকাশ না করার শর্তে পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, এই ছেলেগুলো অনেক উগ্র। তারা যাচ্ছেতাই ব্যবহার করে। সারাদিন এখানে আড্ডা দেয়। পান থেকে চুন খসলেই ঝগড়াঝাটি, মারামারিতে জড়ায়। উঠতি বয়সী এসব ছেলেদেরকে ভয় পায় বড়রাও। তারা উচ্চশব্দে মোটরসাইকেল রেস করে, মেয়েদের উত্যক্ত করে।

ভার্টিক্যাল হরাইজন কোচিং সেন্টারের এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, অভিভাবকদের সচেতনতা না থাকায় নামিদামি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের অনেক কিশোর বখে যাচ্ছে। তাদের উৎপাত দিনকে দিন বেড়েই চলেছে। মেয়েদের উত্ত্যক্ত করার ঘটনা প্রতিদিনই ঘটছে। যে কারণে আমি আমার মেয়েকে একা ছাড়ি না কখনোই। স্কুলে-কোচিংয়ে সব জায়গায় মেয়ের সাথেই যাই।

এসব কিশোরদের নামে আগেও থানায় অভিযোগ গেছে:

এই গ্যাংটি নানা ধরণের অপকর্মের সঙ্গে জড়িত। গত জানুয়ারি মাসে ম্যাপললিফেরই এক মেয়েকে একটি রেস্টুরেন্টে ডেকে নিয়ে  প্রকাশ্যে মারধোর করে ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়েছিল এই গ্যাংয়ের মেম্বাররা। ওই ঘটনায় মেয়েটির পরিবার গত ২৯ জানুয়ারি ধানমন্ডি থানায় জিডি করে।

ধানমন্ডি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুব্রত কুমার বৈদ্য পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, গত শুক্রবার ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের দুই ছাত্রকে মারধর ও ছুরিকাঘাতের ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ করা হয়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা তদন্ত করছি। বাদী পক্ষ সবার নাম পরিচয় দিতে পারেনি, তবে আমরা ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করেছি। সেগুলো দেখে ঘটনায় জড়িতদের খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। আশাকরি শিগগিরই ফাইন্ড আউট হবে।

তিনি বলেন, এসব কিশোরের বিরুদ্ধে আগেও থানায় বিভিন্ন অভিযোগ ছিল। আসলে এটাতো আন্ডারএইজের ব্যাপার। এরা তো পেশাদার অপরাধী নয়, সবাই টিনেজ। তাই অনেকটা সতর্কতার সাথে আমরা কাজ করছি। ফুটেজ আমাদের কাছে রয়েছে, বাদীপক্ষ যদি পরবর্তীতে মামলা করে তাহলে আমরা ফুটেজ ডিজক্লোজ করতে পারবো। তবে তদন্তের স্বার্থে এখনই এসব ফুটেজ প্রকাশ যোগ্য নয়।

Your Promo BD

বিশেষ প্রতিবেদন আরও সংবাদ

খুলনার ছয়টি আসনে দলীয় প্রার্থী হওয়ার আশায় আওয়ামীলীগে নতুন মুখ

ডুমুরিয়ার সীমান্তবর্তী সুইচ গেট মরন ফাদে পরিনত

হারিয়ে যাচ্ছে গাঁও গ্রামের মহিলাদের ঐতিহ্য জাঁতাকল

খুলনায় ঔষুধ কোম্পানির দৌরাত্ম্যে রোগীদের দুর্ভোগ চরমে

প্রভাবশালীদের প্রভাবে ডুমুরিয়ায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি দখলের মহোৎসব থামছে না

খুলনা নগরীতে থ্রি হুইলার থেকে চাঁদাবাজি বছরে প্রায় ৪কোটি টাকা

চ্যানেল খুলনা মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন  
DMCA.com Protection Status
উপদেষ্টা সম্পাদক: এস এম নুর হাসান জনি
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: শেখ মশিউর রহমান
It’s An Sister Concern of Channel Khulna Media
© ২০১৮ - ২০২২ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | চ্যানেল খুলনা.বাংলা, channelkhulna.com, channelkhulna.com.bd
যোগাযোগঃ কেডিএ এপ্রোচ রোড (টেক্সটাইল মিল মোড়), নিউ মার্কেট, খুলনা।
ঢাকা অফিসঃ ৬৬৪/এ, খিলগাও, ঢাকা-১২১৯।
ফোন- 09696-408030, 01704-408030, ই-মেইল: channelkhulnatv@gmail.com
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্তির জন্য আবেদিত।