সব কিছু
facebook channelkhulna.tv
খুলনা সোমবার , ২০শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ৪ঠা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
প্রজনন মৌসুমে সুন্দরবনে অবাধে মা কাঁকড়া শিকার | চ্যানেল খুলনা

প্রজনন মৌসুমে সুন্দরবনে অবাধে মা কাঁকড়া শিকার

শেখ মাহতাব হোসেন :: ডুমুরিয়া ( খুলনা)জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি কাঁকড়ার প্রজনন মৌসুম। এ সময় সুন্দরবনে কাঁকড়া ধরা নিষিদ্ধ। তবে এ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রতি বছর বনের বিভিন্ন নদী ও খালে অবাধে ডিমওয়ালা মা কাঁকড়া শিকার চলে।
স্থানীয়দের অভিযোগ, এক শ্রেণীর অসাধু জেলে বন বিভাগের কতিপয় কর্মকর্তার সহযোগিতায় মাছ ধরার পাস নিয়ে সুন্দরবনে ঢুকে মা কাঁকড়া ধরেন। এতে প্রজনন মৌসুমে সুন্দরবনে কাঁকড়া ধরা বন্ধ রাখার নির্দেশনা শুধু কাগজে-কলমেই সীমাবদ্ধ থাকছে।
শিলা কাঁকড়ার প্রধান উৎস সুন্দরবনে রয়েছে প্রায় ১৪ প্রজাতির কাঁকড়া। প্রজনন বাড়ানোর লক্ষ্যে বছরের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি সুন্দরবনে কাঁকড়া আহরণ ও বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে বন বিভাগ। কিন্তু এর তোয়াক্কা না করে সুন্দরবন পূর্ব ও পশ্চিম বন বিভাগের বিভিন্ন স্টেশনের নদী ও খালে অবাধে ডিমওয়ালা মা কাঁকড়া শিকার করছেন অসাধু জেলেরা। আর বন বিভাগের কতিপয় কর্মকর্তা তাদের আর্থিক সুবিধার বিনিময়ে সহযোগিতা করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক জেলে জানান, বন বিভাগের কয়েকজন স্টেশন কর্মকর্তা সপ্তাহে দুজন জেলের নৌকাপ্রতি রাজস্বের টাকাসহ ২০০০-২৫০০ টাকা এবং তিনজন জেলের নৌকাপ্রতি ৩০০০-৩৫০০ টাকা নিয়ে মাছ ধরার অনুমতি দিয়ে কাঁকড়া ধরায় সহযোগিতা করছেন। এছাড়া মাঝেমধ্যে ওই কর্মকর্তারা জেলেদের নৌকা থেকে ইচ্ছামতো কাঁকড়া তুলে নিয়ে বিক্রি করে দিচ্ছেন বলেও জেলেদের অভিযোগ।
কাঁকড়া ব্যবসায়ীরা জানান, কয়েক মাস কাঁকড়ার দাম কম থাকলেও বর্তমানে বেড়েছে। কাঁকড়ার জাত ও আকারভেদে সর্বনিম্ন ১২০ থেকে সর্বোচ্চ ১ হাজার ৩০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।
খুলনা সুন্দরবন একাডেমির নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক আনোয়ারুল কাদির বলেন, সুন্দরবন লাগোয়া জনপদের প্রায় ৩০ হাজার জেলে পরিবারের জীবন-জীবিকা চলে বনের মাছ ও কাঁকড়া ধরে। কিন্তু জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি কাঁকড়ার প্রজনন মৌসুম সুন্দরবনের নদী-খালগুলোতে অসাধু জেলেরা অবাধে ডিমওয়ালা মা কাঁকড়া শিকার করছেন। এতে কাঁকড়া কমে সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্যের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে।
পূর্ব সুন্দরবনের বন কর্মকর্তা মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন জানান, প্রজনন মৌসুমে কাঁকড়া আহরণের অনুমতি নেই। তবে এ ধরনের অনৈতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে কেউ জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। একই কথা বলেছেন সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা।

https://channelkhulna.tv/

বিশেষ প্রতিবেদন আরও সংবাদ

ডুমুরিয়ায় চিংড়িতে বিষাক্ত অপদ্রব্য পুশ, আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ ডিপো মালিক

খাজনা- সে যুগ এ যুগ

৬০ টাকার উমেদার বাবু এখন ‘জমিদার বাবু’

সুন্দরবনে চিংড়ি জালে সর্বনাশ!

তালায় নিরাপদ পানি সঙ্কটে দুঃসহ জীবন হাজার হাজার পরিবারের

ডুমুরিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর উপহারে স্বাবলম্বী ভেসে বেড়ানো ১০৫ পরিবার

চ্যানেল খুলনা মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন  
DMCA.com Protection Status
উপদেষ্টা সম্পাদক: এস এম নুর হাসান জনি
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: শেখ মশিউর রহমান
It’s An Sister Concern of Channel Khulna Media
© ২০১৮ - ২০২২ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | চ্যানেল খুলনা.বাংলা, channelkhulna.com, channelkhulna.com.bd
যোগাযোগঃ কেডিএ এপ্রোচ রোড (টেক্সটাইল মিল মোড়), নিউ মার্কেট, খুলনা।
ঢাকা অফিসঃ ৬৬৪/এ, খিলগাও, ঢাকা-১২১৯।
ফোন- 09696-408030, 01704-408030, ই-মেইল: channelkhulnatv@gmail.com
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্তির জন্য আবেদিত।